পূর্ণিমার দোয়া কবুল হয়েছে

.গত নভেম্বর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০২২ প্রদান অনুষ্ঠানের উপস্থাপনায় ছিলেন ফেরদৌস-পূর্ণিমা। তখনও আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পাওয়ার জন্য দৌড়ঝাঁপ করছিলেন ফেরদৌস। পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সেখানেই ফেরদৌসের মনোনয়নের বিষয়টি রসিকতার ছলে তোলেন পূর্ণিমা। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সামনে মঞ্চে দাঁড়িয়ে ফেরদৌসকে উদ্দেশ্য করে মজার ছলে পূর্ণিমা বলে ফেলেন, পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছো, ভেবো না মনোনয়ন পাবা! তখন উত্তরে ফেরদৌস বলেন, বলা তো যায় না, পেয়েও যেতে পারি। পূর্ণিমা-ফেরদৌসের এমন রসিকতা দেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার বোন শেখ রেহানা দুজনে হেসে ফেলেন।

এই ভিডিওটি সেই অনুষ্ঠানে দেখানো হলে পূর্ণিমা বলেন, ফেরদৌস আমার বন্ধু। আমার যতটুকু করার দরকার আমি করে দিয়েছি। আমি জায়গা মতো বলে দিয়েছি!

এর কিছুদিন পরেই ‘ঢাকা ১০’ আসন থেকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পেয়েছেন ফেরদৌস। সম্প্রতি এই অনুষ্ঠানে পূর্ণিমার কথাটি স্বীকার করেন এ নায়ক। ফেরদৌস বলেন, আমি বরাবরই বন্ধুত্ব এবং ভালোবাসায় বিশ্বাস করি। পূর্ণিমা আমার বেস্ট ফ্রেন্ড। সে আমার জন্য দোয়া করেছে এবং সেটি আল্লাহ কবুল করেছে। এটা জ্বলন্ত উদাহরণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *