ঢাকাSaturday , 27 November 2021
  1. 'অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আর্কাইভ
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. খেলাধুলা
  8. ঘুষ-দুর্নীতি-অনিয়ম
  9. জাতীয়
  10. ধর্ম
  11. নারী ও শিশু
  12. প্রবাসীদের কথা
  13. বরিশাল
  14. বিজ্ঞান
  15. বিনোদন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

প্রেমের টানে শরিয়তপুর থেকে মঠবাড়িয়ায় এসে লাশ হলেন সাফিয়া

Link Copied!

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় সাফিয়া আক্তার (২০) নামের এক নববধূর লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার বুড়িরচর গ্রামে স্বামীর বসতঘরের সামনে একটি গাছের সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত সাফিয়া আক্তার ওই গ্রামের জুয়েল মিয়ার স্ত্রী ও শরিয়তপুর জেলার সখিপুর থানার চরকুমারিয়া হাওলাদার কান্দি গ্রামের দিনমজুর মহসিন ফকিরের মেয়ে।
থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার বুড়িরচর গ্রামে রফিক হাওলাদারের ছেলে জুয়েল হাওলাদার প্রেমের সম্পর্ক করে সাফিয়া আক্তারকে একমাস পূর্বে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এদিকে সাফিয়া আক্তারেরও এটি দ্বিতীয় বিয়ে। বিয়ের পর থেকে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হয়। শুক্রবার গভীর রাতে গাছের সাথে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় নববধূকে দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা থানা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গভীর রাতে লাশ উদ্ধার করে। তবে জুয়েলের সাথে সাফিয়া আক্তারের বিয়ের কোন কাগজপত্র পাওয়া যায়নি।
নিহত সাফিয়া আক্তারের ভাই জামাল হোসেন মুঠোফোনে জানান, সফিয়া আক্তারের ৭/৮ মাস পূর্বে সখিপুর থানার আশির্^নগর গ্রামের সবুজ সরদারের সাথে বিয়ে হয়। গত একমাস পূর্বে বাড়ি থেকে সাফিয়া নিখোঁজ হয়। এরপর আত্মীয়-স্বজনদের বাড়ি খুঁজেও তাকে পাওয়া যায়নি।
সাফিয়ার বাবা মহসিন ফকির জানান, আমরা খুবই গরীব মানুষ। আমি এক সময় রিক্সা চালাতাম। এখন অসুস্থতার কারণে রিক্সাও চালাতে পারিনা। পুলিশ আমার মেয়ের দুর্ঘটনার খবর জানালেও আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে আমরা আসতে পারছিনা। আমার মেয়ের লাশ আনার মতো আমাদের সামর্থ নেই।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল জানান, লাশ উদ্ধার করে শনিবার জেলা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহতের স্বজনদের খবর দেয়া হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্বামী জুয়েলকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।