ঢাকাThursday , 2 December 2021
  1. 'অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আর্কাইভ
  6. এক্সক্লুসিভ
  7. খেলাধুলা
  8. ঘুষ-দুর্নীতি-অনিয়ম
  9. জাতীয়
  10. ধর্ম
  11. নারী ও শিশু
  12. প্রবাসীদের কথা
  13. বরিশাল
  14. বিজ্ঞান
  15. বিনোদন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মঠবাড়িয়ায় প্রক্সি দেয়ার অপরাধে ৬ ভুয়া পরীক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলা

Link Copied!

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় অন্যের হয়ে পরীক্ষা (প্রক্সি) দেয়ার অপরাধে তাফালবাড়িয়া হাসানিয়া আলিম মাদ্রাসার ৬ ভুয়া পরীক্ষার্থীকে আটক করে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার আলিম মাদ্রাসা পরীক্ষা কেন্দ্র-২ থেকে তাদের আটক করা হয়। ভুয়া পরীক্ষার্থীদের বয়স ২০ বছরের কম হওয়ায় তাদের নাম পরিচয় প্রকাশ করা হলো না।

সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার তাফালবাড়িয়া হাসানিয়া আলিম মাদ্রাসার ১৭ জন শিক্ষার্থী মাদ্রাসা পরীক্ষা কেন্দ্র-২ এ পরীক্ষা দিতে অংশ নয়। এদের ১৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১৫ জন অন্যের বদলি পরীক্ষা দিচ্ছেন এমন সংবাদের ভিত্তিতে সংবাদকর্মীরা বিষয়টি মুঠোফোনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করেন। তিনি তাৎক্ষণিক উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাখাওয়াত জামিল সৈকতকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য বলেন। অতঃপর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওই পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে উপস্থিত পরীক্ষার্থীর স্বাক্ষর ও প্রবেশ পত্রের মিল না থাকায় ভূয়া ৬ পরীক্ষার্থীকে আটক করে পুলিশে দেন। এসময় আরও ৬ মহিলা পরীক্ষার্থীসহ ৯ জন পরীক্ষার্থী কেন্দ্র থেকে পালিয় যায়।

পরীক্ষার হল সুপার দাউদখালী ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আব্দুল কুদ্দুস জানান, অন্যের হয়ে বদলী পরীক্ষা দিচ্ছেন এটা আমাদের জানা ছিল না। ধরা পরার পর ওই ৬ ভূয়া পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তাফালবাড়িয়া হাসানিয়া আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ খলিলুর রহমানের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ও বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের কাছ চিঠি দেয়া হবে।

মঠবাড়িয়া উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাখাওয়াত জামিল সৈকত জানান, ৬ ভূয়া পরীক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে প্রচলিত আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মঠবাড়িয়া থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল জানান, পরীক্ষার কেন্দ্র সচিব বাদি হয়ে ভূয়া ৬ পরীক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। আটককৃত পরীক্ষার্থীদের আগামীকাল আদালতে পাঠানো হবে। পরবর্তীতে আদালত সিদ্ধান্ত নিবে তাদের (কিশোর সংশোধনাগার না অন্য কোথাও) কোথায় পাঠানো হবে।